মেনু নির্বাচন করুন
বয়স্ক ভাতা

সেবা প্রদান পদ্ধতি (সংক্ষেপে)

যাদের বার্ষিক গড় আয় সর্বোচ্চ ১০,০০০/- এবং পুরুষের ক্ষেত্রে বয়স সর্বনিম্ন ৬৫ বছর ও মহিলার ক্ষেত্রে বয়স সর্বনিম্ন ৬২ বছর তারা নির্ধারিত ফরমে উপজেলা/শহর সমাজসেবা অফিসার বরাবরে আবেদন করবেন। নীতিমালা অনুসারে ইউনিয়ন কমিটি কর্তৃক আবেদনসমূহ যাচাই-বাছাই করে প্রাথমিক তালিকা প্রস্তুত করে সুপারিশসহ চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য উপজেলা কমিটিতে প্রেরণ করা হয়। উপজেলা/ পৌরসভা/মহানগর কমিটি প্রাপ্ত তালিকা যাচাই-বাছাইপূর্বক চূড়ান্ত করে মাননীয় সংসদ সদস্যের সম্মতি/অনুমোদনক্রমে ভাতাভোগীদের নামে উপজেলা/শহর সমাজসেবা অফিসার কর্তৃক ভাতা বই ইস্যু করা হয়। অতঃপর ভাতাভোগীকে অবহিত করার পর ভাতাভোগী ১০ টাকার বিনিময়ে নিজ নামে ব্যাংক হিসাব খোলেন। উপ-পরিচালক জেলা সমাজসেবা কার্যালয়/উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং সংশ্লিষ্ট সমাজসেবা অফিসারের যৌথ ব্যাংক হিসাব হতে ভাতাভোগীদের ব্যাংক হিসাবে ভাতার টাকা স্থানান্তরের মাধ্যমে ভাতা বিতরণ সম্পন্ন হয়। সুবিধাভোগীদের নিজ ব্যাংক হিসাব থেকে ভাতার অর্থ উত্তোলন করেন।

 

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

১.  নির্ধারিত ফরমে আবেদন

২.   ইউপি চেয়ারম্যান/সদস্য কর্তৃক প্রত্যয়নপত্র

৩.  পাসপোর্ট সাইজের ছবি-০৪(চার) কপি।

৪.   জাতীয় পরিচয়পত্র/নাগরিকত্ব সনদ (ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান/মেম্বার কর্তৃক সত্যায়িত)

সেবা প্রাপ্তির শর্তাবলি

দেশের সকল সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও উপজেলার ৬৫ বছর বা তদূর্ধ্ব বয়সি হতদরিদ্র পুরুষ এবং ৬২ বছরের ঊর্ধ্ব বয়সি মহিলা যার বার্ষিক গড় আয় অনূর্ধ্ব ১০,০০০/- (দশ হাজার) টাকা।

শারীরিকভাবে অক্ষম ও কর্মক্ষমতাহীন প্রবীণ  পুরুষ ও মহিলাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়।

তালাক প্রাপ্ত- স্বামী পরিত্যক্তা, নিঃসন্তান অথবা বিপত্মীক, পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন প্রবীণ নারী-পুরুষ হতে হবে।

যে সকল প্রবীণ ব্যক্তির আয়কৃত অর্থের সম্পূর্ণ অর্থ খাদ্য বাবদ ব্যয় হয় এবং চিকিৎসা, বাসস্থান, ইত্যাদি খাতে খরচ করার জন্য কোনো অর্থ অবশিষ্ট থাকে না।

ভূমিহীন বয়স্ক ব্যক্তি।

সংশ্লিষ্ট আইন ও বিধি

১.  বয়স্ক ভাতা কার্যক্রম বাস্তবায়ন নীতিমালা।

২.  সরকারি অন্য কোনো সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিতে সেবা গ্রহণ করে থাকলে এ সেবা পাবেন না।

৩.  পেনশনারী ব্যক্তি এ সেবা পাবেন না।

/

Share with :

Facebook Twitter